Skip to main content

Posts

রবার্ট আর্থার জুনিয়র (Robert Arthur Jr.)

রবার্ট আর্থার ছিলেন একজন আমেরিকান লেখক। তিনি ১৯০৯ সালের ১০ই নভেম্বর জন্মগ্রহ করেন। তার লেখা "মিস্টিরিয়াস ট্রাভেলার" রেডিও সিরিজ এবং" দা থ্রী ইনভেসটিগেটরস" যা বাংলায় "তিন গোয়েন্দা" নামে অনুবাদিত হয়। তার এই দুই সিরিজ খুব জনপ্রিয়তা পায়।
তিনি দুবার পদক দ্বারা সম্মানিত হন (Edgar Award) আমেরিকান মিস্টিরি লেখক হতে, বেস্ট রেডিও ড্রামার জন্য। তিনি টেলিভিশনের জন্যও সিরিজ লিখেছিলেন যেমন "দা টুইলাইট জোন" এবং "আলফ্রেড হিচকক" টিভি শো। ব্যাক্তিগত জীবন-তিনি ফিলিপাইনের ফোর্ট মিলস, কোরিগেটর আইলেন্ডে জন্ম গ্রহন করেন।
তার পিতা ছিলেন আমেরিকান সেনাবাহিনিতে ল্যাফটেন্যান্ট পদে কর্মরত। তার বাবার বদলির জন্য তার ছেলেবেলা কেটেছে বিভিন্ন জায়গায়। তিনি তার বাবার মত মিলিটারী ক্যারিয়ার পছন্দ করেননি। তিনি ১৯২৬ সালে ভার্জিনিয়ার  উইলিয়াম এন্ড মেরি কলেজে ভর্তি হন। এরপর তিনি ১৯৩০ সালে ইউনিভার্সিটি অফ মিসিগান থেকে ইংরেজী বিভাগে গ্রাজুয়েশন করেন।
গ্রাজুয়েশনের পর তিনি সম্পাদক হিসেবে কাজ করেছিলেন। পরে তিনি ১৯৩২ সালে ইউনিভার্সিটি অফ মিসিগান থেকে সাংবাদিকতা বিষয়ে এম.এ ডিগ্রী লাভ…
Recent posts

Song- Oguchalo bichana

Singer- Kumar Biswajit (  কুমার বিশ্বজিত)
Tune- Ali akber rupu (' আলি আকবর রুপু )
Lyrics- Salahuddin Sajal ( কথা- সালাহউদ্দিন সজল )

কথা-
এস্ট্রেতে উপছে পড়া ছাই
এলোমেলো বুকসেলফ, মলাটছেড়া কিছু কবিতার বই
ক্যাসেটে হারানো দিনের গান , একাকি ঘরে আমার
সবইযে বন্ধু, সবইযে  আমার  প্রান

দেয়ালের এককোনে মাকড়সা বুনেছে জাল
তারপাশে টিকটিকির শান্তিতে কাটে কাল।
,ওহো
দেয়ালের এককোনে মাকড়সা বুনেছে জাল
তারপাশে টিকটিকির শান্তিতে কাটে কাল।

মশারির ফোকর দিয়ে মশাদের আনাগোনা রাত্রিতে বোঝে নেয় লেনাদেনা | দেয়ালে টান্গানো হাসিমুখে চেয়ে আছে সুসিত্রা সেন তারই পাশে আমার ছবি যেন নির্বাক প্রেম। জানি হিসেবে এসবই বেমানান তবু একাকি ঘরে আমার সবইযে বন্ধু, সবইযে আমার প্রান ||

প্লাস্টিকের বোতল দিয়ে ডেকোরেশন

প্লাস্টিকের বোতল দিয়ে অনেক সুন্দর সুন্দর আকর্ষনীয় জিনিস তৈরী
করতে পারেন।

১. ঝারবাতি-   বোতলের নিচের অংশ কেটে রং করে নিন। রং শুকিয়ে যাবার পর আঠা বা ফুটো করে
জোড়া দিন।
ভেতরে সেট করুন পছন্দমতো লাইট। এবার তৈরী হয়ে গেল অন্যরকম ঝাড় বাতি।
এর খরচ খুব সামান্য। এটা বানিয়ে পরিবারের  সবাইকে চমক দিতে পারেন।


২. মাছের পিঠের মতো ঝারবাতি - একটা বড় বোতল নিয়ে নিচের অংশ কেটে ফেলুন। এখন ওয়ানটাইম ইউজ প্লাস্টিকের চামচের ডাটা কেটে ফেলুন । এবার
চামচের উপরের অংশ আঠা দিয়ে বোতলের গায়ে সেট করুন। মাছের আঁশের মতো করে বসান।
বোতলের মুখের জায়গায় সেট করুন আরো কিছু চামচের মাথা। এতে মুখটা ঢাকা পড়ে যাবে। এবার একটা বাল্ব তারের সাথে সংযুক্ত করে দিয়ে বোতলের ভিতর দিয়ে ঢুকিয়ে দিতে হবে। এবার তৈরী হয়ে গেল ঝুলানো ল্যাম্প।


এই রাত তোমার আমার, হেমন্ত মুখোপাধ্যায়ের গান

শিরোনাম -এই রাত তোমার আমার
কন্ঠ- হেমন্ত মুখোপাধ্যায়
কথা- গৌরীপ্রসন্ন মজুমদারমজুমদার
সূর- হেমন্ত মূখোপাধ্যায়
সিনেমা- দীপ জ্বেলে যাই
এই রাত তোমার আমার
ওই চাঁদ তোমার আমার
শুধু দুজনের
এই রাত শুধুযে গানের
এই ক্ষন এ দুটি প্রানের
কুহু কুজনের
এই রাত তোমার আমার
তুমি আছো আমি আছি তাই
অনুভবে তোমারে যে পাই
শুধু দুজনের
এই রাত তোমার আমার
ওই চাঁদ তোমার আমার
শুধু দুজনের ||

রানী প্রথম এলিজাবেথ

রানী প্রথম এলিজাবেথ ১৫৩৩ সালের ৭ই সেপ্টেম্বর ইংল্যাকরেন।  প্লাসেন্টিয়া প্রাসাদের গ্রিনিচে জন্ম গ্রহন করেন। তিনি ১৫৫৭ সালের ১৭ই নভেম্বর থেকে মৃত্যুর আগ পর্যন্ত ইংল্যান্ড, আয়ারল্যান্ড ও ফ্রান্সের রানী ছিলেন।
তিনি ছিলেন টিউডর রাজবংশের পন্চম ও সর্বশেষ রানী। রাজা অষ্টম হেনরি তার বাবা ছিলেন।  এলিজাবেথের মা অ্যান বোলিনকে হত্যা করা হয় যখন তার বয়স মাত্র আরাই বছর। এবং তাকে অবৈধ ঘোষনা করে। এসময় উত্তরাধিকার সংক্রান্ত জটিলতা কাটাতে তার ভাই ষষ্ঠ এডওয়ার্ড সিংহাসনের ভার অর্পন করেন লেডি জন গ্রের উপর।  এরপর ১৫৫৮ সালের ১৭ই নভেম্ভর রানী প্রথম মেরির স্হলাভিসিক্ত হন।  প্রোটেস্টন্ট বিদ্রোহিদের সহযোগিতা করার অপরাধে মেরির শাসন যুগে তাকে এক বছর গৃহবন্দি করে রাখা হয়। পরবর্তিতে যখন তিনি রানী হন তখন ইংলিশ প্রোটেস্টেন্ট চার্চ প্রতিষ্ঠা
করেন এবং তিনি সেটির গভর্নর ছিলেন। তিনি অবিবাহিতা ছিলেন। তার মৃত্যুর ২০ বছর পরেও সোনালি যুগের শাসক হিসেবে সমাদৃত ছিলেন। তার শাসনকালকে এলিজাবেথিয় এরা বা এলিজাবেথিয় যুগ বলে। শেক্সপিয়ারের নাটকে এলিজাবেথ এরা ঘুরে ফিরে এসেছে।
তিনি ১৬০৩ সালের ২৪শে মার্চ ইংল্যান্ডের রিচমন্ড প্রাসাদে পরলোক…

টমাস আলভা এডিসন

টমাস আলভা এডিসন ছিলেন মার্কিন বিজ্ঞানি। টমাস আলভা এডিসন ১৮৪৭ সালের ১১ই ফেব্রুয়ারি  যুক্তরাষ্ট্রের ওহিও, মিলানে

জন্মগ্রহন করেন।  তিনি বৈদ্যুতিক বাতি, গ্রামোফোন ও ভিডিও ক্যামেরাসহ বহু যন্ত্র উদ্ভাবন করেন যা
বিংশ শতাব্দির জীবনকে প্রভাবিত করেছে। বিজ্ঞানীদের ইতিহাসে তিনি একজন উল্লেখযোগ্য বিজ্ঞানী। তার নিজের নামে ১০৯৩টি মার্কিন পেটেন্ট সহ ফ্রান্স, যুক্তরাজ্য ও জার্মানির পেটেন্ট রয়েছে।
টেলিযোগাযোগ খাতে তার উদ্ভাবনের জন্য তিনি সর্বস্বীকৃত। তার উদ্ভাবনের মধ্যে ভোট ধারনকারি যন্ত্র, স্টক টিকার,বৈদ্যুতিক গাড়ির ব্যাটারী, বৈদ্যুতিক শক্তি, ধারনযোগ্য ছবি ও সংগীত।
তিনি জীবনের প্রথম দিকে টেলিফোন অপারেটর হিসেবে কাজ করেন। ব্যবসা বানিজ্য, কারখানা ও বাসাতে বিদ্যুত শক্তি উৎপাদন ও বন্টনের ধারনা তার হাত দিয়ে শুরু হয় , যা শিল্পজগতের উন্নয়নে একটা যুগান্তকারি ঘটনা।নিউইয়র্কের ম্যানহাটন দ্বীপে প্রথম বিদ্যুত কেন্দ্র স্হাপিত হয়।
তার পিতার নাম স্যামুয়েল অগডেন এডিসন ও মাতার নাম ন্যানসি ম্যাথিউস এলিয়েটর।
তিনি ছিলেন তার পিতামাতার সপ্তম ও সর্বশেষ সন্তান। ১৮৭১ সালের ২৫শে ডিসেম্বর তিনি মেরি স্টিলওয়েলকে বিয়ে করেন। তাদের ত…

স্রেয়া ঘোষালের গান

গান- রূপকথারা
এলবাম- অপরাজিতা তুমি
শিল্পি- স্রেয়া ঘোষাল
গীতিকার- সান্তানু মৈত্র

কথা-
শহরে হঠাৎ আলোচলাচল, জোনাকি নাকি স্মৃতিদাগে
কাঁপছিল মন, নিরালা রকম ডাকনাম নামল পরাগে |

কে হারায় ইশারায়
সাড়া দাও ফেলে আসা গান
রূপকথারা রা রা রা রা
চুপকথারা রা রা রা রা
ফুরফুরে এক রোদের জন্মদিন !

মন পাহারা রা রা রা রা
বন্ধুরা রা রা রা রা
আজ খোলা আলটুসি ক্যান্টিন !

বোবা ইমারত, অকুলানো অনুরাগে, শালিকের সৎ অনুরাগে,
বলেছে আবার জানালার ধার, ধার-বাকি হাতে চিঠি জাগে !

কে হারায় ইশারায়
সাড়া দাও ফেলে আসা গান
রূপকথারা রা রা রা রা
ফুরফুরে এক রোদের জন্মদিন !

মন পাহারা রা রা রা রা
বন্ধুরা রা রা রা রা
আজ খোলা আলক্যান্টিন !
রোদেলা বেলার, কবিতা খেলার, শীত- ঘুম বইয়ের ভাঁজে,
বেসামাল ট্রাম, মুঠোর বাদাম, জ্বালাতনে গাংচিলটাযে।
ঝরে একাকার, বালিধুলো তার, তুলো তুলো বেখায়াল।

হঠাৎ শহর, পুরনো মোহর, মহড়া সাজানো আবডালে ।
লজ্জা চিবুক, বানবাসি সুখ, শুক-সারি গল্প নাগালে।

কে হারায়  ইশারায়
সাড়া দাও ফেলে আসা গান
রূপকথারা রা রা রা রা
চুপকথারা রা রা রা রা
ফুরফুরে এক রোদের জন্মদিন !

মন পাহারা রা রা রা রা
বন্ধুরা রা রা রা রা
আজ খোলা আলটুসি ক…

তাজহাট জমিদার বাড়ি

তাজহাট জমিদার বাড়িটি রংপুর জেলার অদূরে তাজহাট নামক স্হানে অবস্হিত।
এটি একটা ঐতিহাসিক প্রাসাদ যা বর্তমানে যাদুঘর হিসাবে ব্যবহৃত হচ্ছে। এটি রংপুর শহর থেকে দক্ষিনপূর্ব দিকে ৩ কিলোমিটার দূরে অবস্হিত।  পর্যটকদের কাছে এটি একটা আকর্ষনিয় স্হান।

ইতিহাস- বিংশ শতাব্দির শুরুর দিকে বাড়িটি মহারাজা কুমার গোপাল লাল রায় নির্মান করেন।
তিনি ছিলেন হিন্দু ও পেশায় ছিলেন একজন স্বর্নকার। মহারাজা গোপাল রায়ের মনোরোম মুকুটের জন্য এলাকাটি তাজহাট নামে পরিচিতি লাভ করে আসছে। মহারাজা গোপাল রায়ের মনোরোম মুকুটের জন্য এলাকাটি তাজহাট নামে পরিচিতি লাভ করে আসছে। ভবনটি ১৯৮৪ সাল থেকে ১৯৯১ সাল পর্যন্ত রংপুর হাইকোর্ট বাংলাদেশ সুপ্রীম একটা শাখা হিসেবে ব্যবহৃত হয়।
বাংলাদেশ সরকার ১৯৯৫ সালে ভবনটিকে প্রত্নতাত্তিক স্হাপনা হিসেবে ঘোষনা করে।
    ২০০৫  সালে বাংলাদেশ সরকার এই স্হাপনার ঐতিহাসিক গুরুত্ব অনুভব করে   রংপুর যাদুঘরটি এই ভবনের দোতালায় নিয়ে আসে।   এই বাড়ির সিড়িগুলো মার্বেল পাথরের তৈরী।
যাদুঘরে রয়েছে বেশ কয়েকটা প্রদর্শনী কক্ষ এবং এতে রয়েছে দশম ও একাদশ শতাব্দির টেরাকোটা শিল্প কর্ম।  এখানে আরো রয়েছে সংস্কৃতি ও আরবী ভাষায় লেখা বে…